আলোর উৎসবের রাতে নীভে গেল পঞ্চায়েত মন্ত্রীর জীবনের আলো আলোর উৎসবের রাতে নীভে গেল পঞ্চায়েত মন্ত্রীর জীবনের আলো
আলোর উৎসবের রাতে নীভে গেল পঞ্চায়েত মন্ত্রীর জীবনের আলো

আলোর উৎসবের রাতে নীভে গেল পঞ্চায়েত মন্ত্রীর জীবনের আলো

নিউজ  ডেস্ক : দীপাবলির রাতে শোকের আবহ রাজনৈতিক মহলে। প্রয়াত হলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

গত ২৪ অক্টোবর থেকেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। এসএসকে এম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু অবস্থার ক্রমশই অবনতি হয়। তাঁকে উডবার্ন ওয়ার্ডের আইসিসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানেই বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ২২ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়।হাসপাতাল সূত্রের খবর, ধমনীতে দুটি স্টেন্ট বসানো হয়েছিল। তারপর থেকেই শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছিল তাঁর। বৃহস্পতিবার সকালে কার্ডিও থেকে উডবার্ন ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়েছিল। কিন্তু সন্ধ্যায় পরপর দুটি ‘কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট’ হয়। দ্রুত তাঁকে স্থানান্তর করা হয় আইসিসিইউতে।

খবর পেয়েই হাসপাতালে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রিয় সুব্রতদার মৃত্যুর খবরে ভেঙে পড়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আলোর দিনে এমন অন্ধকর নেমে আসবে ভাবতে পারিনি, হাসপাতালেই বলেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যাওয়ার পরই তৃণমূল শিবিরের সব নেতা-মন্ত্রীরা একে একে হাসপাতালে পৌঁছে যান। উল্লেখ্য, ছাত্র রাজনীতি করার সময় থেকেই নজর কেড়েছিলেন সুব্রত। হয়েছিলেন ছাত্র পরিষদের সভাপতি। মাত্র ২৬ বছরে তিনি সিদ্ধার্থশঙ্কর রায়ের মন্ত্রীসভার সদস্য হন। ১৯৭২ সালে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতিমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি। ২০০০ সালে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরের বছরই কলকাতা পুরসভার মেয়র। এর পরে ফের যোগ দেন কংগ্রেসে। তবে ২০১০ সালে কার্যত পাকাপাকি ভাবে তৃণমূলে ফিরে আসেন তিনি। ২০১১ সালে তৃণমূল সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে মন্ত্রী হয়েছিলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়। প্রিয় সুব্রত দা-কে হারিয়ে শোকে পাথর গোটা তৃণমূল শিবির।


Comments are closed.

২০২০ কপিরাইট সংরক্ষিত আরসি টিভি সংবাদ
error: Content is protected !!